গুলিস্তানে দোকানি-পুলিশের পাল্টাপাল্টি ধাওয়া

রাজধানীর গুলিস্তান এলাকায় দোকানদারদের সঙ্গে পুলিশের পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। আজ বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিআরটিসি কাউন্টারের সামনের সড়কে এ ঘটনা ঘটে। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে দোকান খুলে দেওয়ার দাবিতে বেলা ১১টার দিকে গুলিস্তান এলাকায় ঢাকা রেডিমেড গার্মেন্টস ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির ব্যানারে দোকানিরা ফুলবাড়িয়া সুপার মার্কেট–২–এর সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন।

এরপর তাঁরা বিআরটিসি কাউন্টারের সামনের সড়ক অবরোধ করার চেষ্টা করলে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে দোকানিরা ইটপাটকেল ছুড়তে থাকেন। একপর্যায়ে পুলিশ তাঁদের নিবৃত্ত করার চেষ্টা করে। পরে দোকানিরা ওই এলাকা ছেড়ে চলে যান।

সিটি প্লাজার দোকানি মাহামুদুল হাসান প্রথম আলোকে বলেন, করোনার কারণে লকডাউনের কথা বলা হলেও কার্যত ঢাকায় জীবনযাত্রা স্বাভাবিক। গণপরিবহন চলছে। বইমেলা চলছে। কাঁচাবাজার খোলা। মানুষ নিয়মিত অফিস করছেন। কেবল স্বাস্থ্যবিধির কথা বলে তাঁদের দোকান বন্ধ রাখা হয়েছে। এর প্রতিবাদে তাঁরা রাস্তায় নেমেছেন।


বিভিন্ন পোস্টার ও ব্যানার নিয়ে বিক্ষোভ করেন দোকানিরা।

সরেজমিনে দেখা যায়, দোকানিরা যখন সড়ক অবরোধ করেন, তখন এই এলাকায় ২০ মিনিটের মতো যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। ‌পুলিশ বিক্ষোভকারীদের সড়ক থেকে সরে যাওয়ার অনুরোধ করলে তাঁরা পুলিশের ওপর চড়াও হন। পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেন। পরে পুলিশও তাঁদের পাল্টা ধাওয়া দিয়ে রাস্তা থেকে সরিয়ে দেয়।

ঢাকা রেডিমেড গার্মেন্টস ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সভাপতি মো. আবদুল মান্নান কর্মসূচির ইতি টেনে দোকানির উদ্দেশে বক্তব্য দেন। এ সময় তিনি দু–এক দিনের মধ্যে দোকান খুলতে না দিলে বৃহত্তর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দেন। এই ব্যবসায়ীনেতা বলেন, প্রয়োজনে নিজেরাই দোকান খুলবেন। ধুঁকে ধুঁকে মরার চেয়ে একবারে মরাই অনেক ভালো। স্বাস্থ্যবিধি মেনে দোকান চালু রাখতে সরকারের কাছে অনুরোধ জানান।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *