যে দেশে নেই কোনো কারাগার, নেই কোনো দেশি মুদ্রা

শিরোনাম পড়ে আপনি কিছুটা হলেও অবাক হয়েছেন। পৃথিবীতে এমনও কোনো দেশ আছে যেখানে কারাগার নেই ! আরো মজার ব্যাপার হলো যে দেশের কথা বলা হচ্ছে, সে দেশের বয়স ইতোমধ্যেই হাজার পেরিয়েছে ! এক হাজারেরও বেশি সময় ধরে দেশটিতে কোনো যুদ্ধ-বিগ্রহের ঘটনা ঘটেনি । ইউরোপের দক্ষিণ-পশ্চিমে ফ্রান্স এবং স্পেনের সীমান্তে পিরিনিজ পর্বতমালার ঢালঘেঁষে গড়ে ওঠা দেশটির নাম আন্দরা। পুরো নাম প্রিন্সিপালিটি অব আন্দোরা।

আন্দোরা


পাহাড়ের কোলে বেড়ে ওঠা দেশটি ছবির মতোই সুন্দর । সারাবছরই এখানে পর্যটকদের ভিড় থাকে । আন্দারার অর্থনীতি প্রায় পুরোটাই পর্যটনের ওপর নির্ভরশীল । প্রতি বছর এখানে ঘুরতে আসেন এক কোটি পর্যটক । যেহেতু এখানে অপরাধ সচরাচর হয় না, তাই নিরাপদ পর্যটনের জন্যও দেশটি সুপরিচিত । হঠাৎ হঠাৎ কেউ যদি অপরাধ করেও ফেলে, তবে তাকে পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর কারাগারে রাখা হয় ।

অবশ্য দেশটি আয়তনেও খুব ছোট। বাংলাদেশের প্রায় ৩০৮ গুণ ছোট দেশটির আয়তন মাত্র ৪৬৮ বর্গকিলোমিটার। দেশটির দীর্ঘতম রাস্তার দৈর্ঘ্য মাত্র ৪০ কিলোমিটার। জনসংখ্যা প্রায় ৭৩ হাজারের মতো। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১০২৩ মিটার (৩৩৫৬ ফুট) উঁচুতে ইউরোপের সর্বোচ্চ শহর আন্দরা-লা-ভেইয়া হচ্ছে আন্দরার রাজধানী।

২০০৪ সালে দেশটি এর নৈসর্গিক সৌন্দর্যের জন্য ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হ্যারিটেজে স্থান পায়৷ দেশটির সম্পর্কে আরো একটি মজার তথ্য হচ্ছে তাদের কখনোই কোনো কেন্দ্রীয় ব্যাংক বা নিজস্ব মুদ্রা ছিল না, এমনকি এখনো তারা বিদেশি মুদ্রা দিয়েই চলছে। তবুও দেশটির জীবনযাত্রার ব্যয় বিশ্বে অষ্টম।

বাংলাদেশ থেকে কোনো বিমান সরাসরি আন্দোরা যায় না। সেক্ষেত্রে আপনাকে প্রথমে বাংলাদেশের পাশ্ববর্তী কোনো দেশ থেকে আন্দোরা যেতে হবে। ভারত হয়ে আন্দোরা যেতে আপনার প্রায় ৭ ঘন্টার মতো সময় লাগতে পারে।